HSC 2022 Islamic History Assignment Answer 14th Week PDF

HSC 2022 Islamic History Assignment Answer 14th Week PDF

See here HSC 2022 Class 12 Islamic History Assignment Answer PDF2022 The subject is islamic history HSC 2022, Pdf Answer solution download, full off Marks all details and pdf file given on this page and Download PDF. So all People Keep reading this article and Write assignment answers know all the details here ok. Check also HSC 2022 Class 12 islamic history Assignment submit Date 2022 and Download link on this page Bottom The subject is islamic history HSC 2022. Check HSC 2022 Class 12 assignment Date Of School 2022. guide & assignment solution has recently released the notification regarding the HSC 2022 Class 12 islamic history Assignment Exam solution 2022 exam dates check on the official Website. HSC 2022 Class 12 islamic history Assignment Answer. The subject is islamic history HSC 2022

How to download pdf for HSC 2022 Class 12 Islamic History assignments?

HSC 2022 Class 12 islamic history Assignment Exam solution released soon on the official website a direct link we provide below of this page download Assignment and Answer PDF file The subject is islamic history HSC 2022. So all Applicants continue to read our article and Write assignment answers know all the details. The subject is islamic history HSC 2022 You can get the first HSC 2022 Class 12 islamic history Assignment all Board. This year the newly started Assignment answer 2022 is all boarded on their website The subject is islamic history HSC 2022. You want to get an HSC 2022 Class 12 islamic history Assignment to keep reading below.

HSC 2022 Class 12 Islamic History Assignment Answer PDF 2022

Bangladesh All Education Boards start HSC 2022 all subject Assignments and Answers will end in December 2022. For multiple subject assignments AND Answer 2022, the same system can be applied. Inter-Class HSC 2022 assignments 2022 start in January 2022 and end in December 2022. Students can also check their HSC 2022 Class 12 islamic history assignments on these websites. HSC 2022 Class 12 islamic history Assignment Answer.

HSC 2022 Class 12 Islamic History Assignment Answer PDF

The Official website authority address www.dshe.gov.bd today published HSC 2022 class 12 Islamic history assignment answers 14th-week 2022. They have published an HSC 2022 Class 12 islamic history assignment solution for the 2022 14th week Bangladesh all education board with question-solving The subject is islamic history HSC 2022. We also posted and you can get your HSC 2022 Class 12 islamic history Assignment at study.shajutechbd.com The subject is islamic history HSC 2022. We tried a full assignment solution for HSC 2022 class 12 islamic history Assignment. Most of the Assignment finders often find 12 class HSC 2022 assignment answers in the 14th week of 2022. Class 12 islamic history Assignment Answer.

HSC 2022 Islamic History Assignment Answer 14th Week PDF

 

এইচএসসি ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি এসাইনমেন্ট ২০২২ ১৪তম সপ্তাহ

উত্তর

শ্রেণি: HSC 2022
দ্বিতীয় পত্র
১৪ তম সপ্তাহ
বিষয়: ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি
অ্যাসাইনমেন্ট নং:৪
বিষয় কোড: ২৬৮
শিরোনাম: “ভারত উপমহাদেশে মুঘল শাসন প্রতিষ্ঠার ইতিহাস পর্যালোচনা”।

১. মুঘল শাসন প্রতিষ্ঠার প্রাক্কালে ভারতের রাজনৈতিক পরিস্থিতি:
মুঘল শাসন প্রতিষ্ঠার প্রাক্কালে আক্রমণের প্রাক্কালে ভারতবর্ষের রাজনৈতিক অস্থিরতা বিরাজমান ছিল।
তখন দিল্লী ও পার্শ্ববর্তী অঞ্চলের শাসক ছিলেন ইব্রাহিম লোদী। তিনি উচ্চাভিলাষী হলেও কুটকৌশলী ছিলেন না।
তার বিরুদ্ধে নানাবিধ ষড়যন্ত্র হয়। ফলে অমাত্যবর্গ ও প্রাদেশিক শাসনকর্তাগণের উপর তার নিয়ন্ত্রণ কম ছিল।

কেন্দ্রীয় শাসনের দুর্বলতার সুযোগে দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র। রাজ্য প্রতিষ্ঠিত হয়। এ সব রাজ্যের মধ্যে পাঞ্জাবের দৌলত খান লোদী সুলতানের চরম বিরোধিতা করেন। এবং ইব্রাহিম লোদীকে সিংহাসনচ্যুত করার জন্য বাবুরকে আমন্ত্রণ জানান। আর এসব কিছুর কারণেই ভারতে মুঘল শাসনের সূত্রপাত ঘটে।

২.ভারতে সম্রাট বাবরের উল্লেখযোগ্য অভিযানঃ সম্রাট বাবর ভারতে বেশকিছু অভিযান পরিচালনা করেন। তার মধ্যে কিছু উল্লেখযোগ্য। অভিযান লেখা হলোপানিপথের প্রথম যুদ্ধ ১৫২৬ খ্রিস্টাব্দঃ ভারতবর্ষে বাবুরের প্রাথমিক বিজয় তাঁকে দিল্লীর সিংহাসন দখলের জন্য উৎসাহিত করে। সে লক্ষে তিনি। দিল্লীর অদূরে ঐতিহাসিক পানিপথ প্রান্তরে ১৫২৬ খ্রিস্টাব্দে ১২ এপ্রিল। দিল্লীর লোদী বংশের শেষ সুলতান ইব্রাহিম লোদীর সাথে সম্মুখ সমরে। অবতীর্ণ হন। বাবুর তাঁর আজীবনী তুযুক-ই-বাবুরী গ্রন্থে উল্লেখ করেছেন যে, এ সময়ে তার সাথে বার হাজার (মতান্তরে আট হাজার সৈন্য ছিল।

তাছাড়া পাঞ্জাব জয়ের পর কিছু অতিরিক্ত সৈন্যও তার সাথে যোগদান। করে। তাঁর জ্যৈষ্ঠপুত্র হুমায়ুনও তার সাথে যোগদান করেন। এ যুদ্ধে ইব্রাহিম লোদীর সৈন্য সংখ্যা ছিল একলক্ষ , পানিপথ প্রান্তরে বাবুর প্রতিরক্ষা কৌশল হিসেবে পরিখা খনন করেন এবং কামান ও গোলন্দাজ বাহিনী ব্যবহার করেন। ভারতবর্ষে এই প্রথম কামানের ব্যবহার করা হয়। এ যুদ্ধে ইব্রাহিম লোদী প্রাণপণ যুদ্ধ বাবরের পানিপথের যুদ্ধ পরিচালনা করেও পরাজিত ও নিহত হন।

খানুয়ার যুদ্ধ ১৫২৭ খ্রিস্টাব্দঃ ভারতের অন্যান্য শক্তির মধ্যে রাজপুত শক্তি ছিল অন্যতম। রাজপুতানার মেবারের অধিপতি ছিলেন রানা সংগ্রাম সিংহ। সংগ্রাম সিংহ আশা করেছিলেন যে বাবুর তার পূর্বপুরুষের ন্যায় দিল্লী লুট করে স্বদেশে ফিরে যাবেন।
তখন তিনি ইব্রাহিম লোদীর রণক্লান্ত সেনাবাহিনীকে সহজেই পরাস্ত করে মুসলিম শাসনের ধ্বংসস্তুপের উপর এক স্বাধীন হিন্দুরাজ্য কায়েম করবেন। কিন্তু পানিপথের যুদ্ধে জয় লাভের পর বাবুরের ভারতবর্ষে স্থায়ীভাবে বসবাসের বাসনার কথা জেনে সংগ্রাম সিংহ এক শক্তিশালী রাজপুত বাহিনী গঠন করেন।

বিভিন্ন রাজ্যের নেতৃবর্গ, আজমীর, মারওয়াড়, আম্বর ও চান্দেরীর রাজপুতগণ এবং মেওয়াটের হাসান খান তাঁর দলে যোগদান করেন। প্রতিপক্ষের যুদ্ধ প্রস্তুতি দেখে বাবুরের সৈন্যগণ।আতংকিত হয়ে পড়ে এবং যুদ্ধ না করে কাবুলে ফিরে যাওয়ার জন্য। উদগ্রীব হয়ে উঠে। সেনাদলের মনোবল বৃদ্ধির জন্য বাবুর দু’টি কাজ করেন। তিনি নিজের পানপাত্র ভেঙ্গে ফেলেন এবং তার সোনার ও রূপার পানপাত্রগুলো বিতরণ করে দেন। বাবুর জেহাদ ঘোষণার মাধ্যমেও সৈন্যদেরকে উদ্দীপ্ত করেন
এবং আগ্রার পশ্চিমে খানুয়ার প্রান্তরে সৈন্য সমাবেশ করেন। ১৫২৭ খ্রিস্টাব্দের ১৭ মার্চ খানুয়ার প্রান্তরে রানা সংগ্রাম সিংহ এবং বাবুরের মধ্যে তুমুল যুদ্ধ সংঘটিত হয়।

প্রায় ১০ ঘন্টার যুদ্ধে রাজপুত বাহিনী অসাধারণ বিক্রম দেখালেও। বাবুরের রণকৌশল শেষ পর্যন্ত রাজপুতদেরকে পরাস্ত করতে সক্ষম হয়। বাবুর এ যুদ্ধেও তুলঘু যুদ্ধ রীতি এবং আগ্নেয়াস্ত্রের ব্যবহারের দ্বারা। রাজপুত শক্তিকে ধ্বংস করেন। সংগ্রাম সিংহ আহত অবস্থায় যুদ্ধক্ষেত্র ত্যাগ করেন। কিছুদিনের মধ্যে তার সহযোগীরা তাকে বিষ পাঠাগ হত্যা করে। গোগরার যুদ্ধ ১৫২৯ খ্রিস্টাব্দঃ ভারতবর্ষের দু’টি বৃহৎ শক্তি ইব্রাহিম লোদী ও রানা সংগ্রাম।সংহ বাবুরের নিকট পরাজিত হলেও পূর্ব ভারতের আফগানগণ তাকে মনে প্রাণে গ্রহণ করতে পারেননি।

বাংলার সুলতান নুসরৎ শাহের আশ্রয়ে আফগান সর্দারগণ পুনরায়:
শক্তি সঞ্চয় করতে থাকেন। বিহারের শের খান, জৌনপুরের মুহম্মদ লদী এবং নুসরৎ শাহ একযোগে দিল্লী আক্রমণের পরিকল্পনা করেন। বাবুরের বাহিনী দ্রুত কনৌজ, বারাণসী, এলাহাবাদ দখল করে বিহার সীমান্তে গোগরা নদীর তীরে উপনীত হলে মুহম্মদ লোদী ও শের খান। বাধা দেন। কিন্তু সুশিক্ষিত মুঘল বাহিনীর নিকট আফগান বাহিনী পরাজিত হয়। ১৫২৯ খ্রিস্টাব্দে মাহমুদ লোদী বাংলার সুলতান নাসিরুদ্দিন নুসরৎ শাহের শরণাপন্ন হন। কিন্তু বাবুরের সঙ্গে নুসরৎ শাহের এক সন্ধি হয়।
এর ফলে বাংলার সুলতান মুঘল আফগান যুদ্ধে নিরপেক্ষ থাকার প্রতিশ্রুতি দেন।

বিনিময়ে বাবুর নুসরৎ শাহের রাজ্য সীমা মেনে নেন এবং অভ্যন্তরীণ ব্যাপারে হস্তক্ষেপ না করার অঙ্গীকার করেন। এ যুদ্ধে বিজয়ের মাধ্যমে ভারতবর্ষে বাবুরের বিজয় অভিযান সমাপ্ত হয়। বাবুর আমুদরিয়া থেকে গোগরা এবং হিমালয় থেকে গোয়ালিয়র পর্যন্ত বিস্তীর্ণ ভূভাগের অধিপতি হন। এভাবে ভারতবর্ষে মুঘল সাম্রাজ্য প্রতিষ্ঠা লাভ করে। ১৫৩০ খ্রিস্টাব্দে জহির উদ্দিন বাবুর আগ্রায় ইন্তেকাল করেন।

৩.বাবরের ভারত অভিযানের ফলাফলঃ সম্রাট বাবরের ভারত অভিযানের ফলাফল ছিল সুদুরপ্রসারী।

যেমন: পানিপথের প্রথম যুদ্ধ ভারতবর্ষের ইতিহাসে এক গুরুত্বপূর্ণ ঘটনা।
এ যুদ্ধে বাবুরের বিজয়ের | ফলে ভারতের তুর্কী আফগান দীর্ঘ শাসনের (১২০৩-১৫২৬ খ্রি:)। অবসান ঘটে। এ যুদ্ধের ফলে বাবুর দিল্লী ও আগ্রা অধিকার করে লোদী সাম্রাজ্যের ধ্বংসস্তুপের উপর মুঘল বংশের বুনিয়াদ বা ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন। করেন। পানিপথের যুদ্ধের ফল হিসেবে ভারতের প্রভুত্ব সম্পূর্ণরূপে না। হলেও আংশিকভাবে বাবুরের হাতে চলে যায়।
পানিপথের যুদ্ধে বিজয়ী হওয়ার পর বাবুর মুঘল বাহিনীর অঙ্গ হিসাবে ভারতবর্ষে গ্লোলন্দাজ বাহিনী প্রবর্তন করেন।

এ যুদ্ধে হয় পোল বাবুরের সামরিক শ্রেষ্ঠত্ব নিঃসন্দেহে প্রমাণিত হয়। পানিপথের যুদ্ধে জয়ের পর বাবুর দিল্লী ও আগ্রায় বহু ধনরত্ন হস্তগত করেন এবং এ সম্পদ বিতরণ করে তিনি সহযোগীদের সমর্থন আদায় করেন। তাছাড়া পানিপথের জয়ের পর বাবুর ভারতবর্ষে স্থায়ীভাবে। রাজত্ব কায়েমের সঙ্কল্প গ্রহণ করেন। এ যুদ্ধে জয়ের ফলে উত্তর ভারতের বিস্তীর্ণ অঞ্চল বাবুরের অধিকারে আসে। বহু আফগান সর্দার তার বশ্যতা স্বীকার করেন।

এছাড়াও বাবরের খানুয়ার যুদ্ধের ফলে ভারতবর্ষে মুঘল শক্তি সুদৃঢ় | ভিত্তির উপর সুপ্রতিষ্ঠিত হয়। বাবুরের ভারতবর্ষ আক্রমণকালীন সময়ে এদেশে দুই পরাক্রমশালী শক্তি ছিল। যেমন আফগান ও রাজপুত। পরপর দু’টি যুদ্ধে বিজয়ের ফলে উভয় শক্তি বিনষ্ট হয়। ফলে ভারতবর্ষে মুঘল শক্তির উত্থানের পথ চির উন্মুক্ত হয়। খানুয়ার প্রান্তরে জয়লাভের পর
মুঘলদের কেন্দ্রীয় রাজধানী কাবুল থেকে দিল্লীতে স্থানান্তরিত হয়। সর্বপরি খানুয়ার যুদ্ধে জয়লাভের পর বাবুর অন্যান্য রাজপুতদেরকে পরাজিত করতে সক্ষম হন। সুতরাং সম্রাট বাবরের বিভিন্ন অভিযান বিজয়ের গুরুত্ব বিবেচনায় এনে । বলা যায় যে ভারতবর্ষে বৃটিশ প্রাধান্য বিস্তারে পলাশীর যুদ্ধের গুরুত্ব যেমন অপরিসীম তেমনি মুঘল প্রাধান্য বিস্তারে বিভিন্ন যুদ্ধ ভারতবর্ষের

8.বাবরের ভারত অভিযানে সাফল্যের কারনঃ ভারতের মুঘল সম্রাজ্যের প্রতিষ্ঠাতা ছিলেন জহিরউদ্দিন মোহাম্মদ বাবর। বাবর মধ্য এশিয়ায় সম্রাজ্য প্রতিষ্ঠাতায় ব্যার্থ হয়েছিলেন। পিতৃ রাজ্য ফারঘানা থেকে বিতাড়িত হয়ে পূর্ব দিকে ভাগ্যন্বেষনের সন্ধানে রত ছিলেন। মধ্য এশিয়ায় সাম্রাজ্য বিস্তারের ধারাবাহিক ব্যর্থতা সত্ত্বেও তিনি, ভারতবর্ষে এক বিশাল অঞ্চল অধিকার করে মোগল সাম্রাজ্যের ভিত্তি স্থাপন করেন। ভারতবর্ষে। তার সাফল্যের পশ্চাতে নানা কারণ ছিল> সুলতানি রাষ্ট্রের শেষের দিকে রাজনৈতিক সংহতি একেবারেই ভেঙে পড়েছিল।

বহুলুল লোদীর প্রচেষ্টা ব্যর্থ হয়েছিল। ইব্রাহিম লোদীর শাসনকালে এই অনৈক্য চরম পর্যায়ে পৌঁছে ছিল। ইব্রাহিম লোদীর আচার-আচরণ আফগান সর্দারদের একেবারেই পছন্দের ছিল না। তাই তারা লোদীর বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র শুরু করেছিল।ভারতের সামরিক ব্যবস্থা বা শক্তি সেইসময় বিশ্বের নিরিখে ছিল। একেবারেই পিছিয়ে। তীর-ধনুক, হস্তী বাহিনী, পদাতিক বাহিনী সম্বলিত আফগান ও রাজপুতরা বাবরের তুলনায় ছিল দুর্বল। তাছাড়া বিভিন্ন । জাতিকে নিয়ে গড়ে তোলা সেনাবাহিনীতে কোন জাতীয় ঐক্য ছিল না। অন্যদিকে বাবরের হাতে ছিল কামান, বন্দুক।

মুস্তাফা ও ওস্তাদ আলীর নেতৃত্বে গড়ে তোলা গোলন্দাজ বাহিনী বাবরের সাফল্যের পথ কে। অবশ্যম্ভাবী করেছিল। ছোট অথচ সুশৃঙুলি বাহিনীর ভিতরে। বিজ্ঞানভিত্তিক সমন্বয় সাধন করে বাবর যুদ্ধ জিতে নিয়েছিল। তাছাড়া বাবর এর কাছে ছিল মধ্য এশিয়ার আরব ও ইরানের তীব্র গতি সম্পন্ন ভাল জাতের ঘোড়া। গোলন্দাজ ও অশ্বারোহী বাহিনী এই যৌথ আক্রমণ তুলঘুমা রণকৌশল নামে পরিচিত।

পরিশেষে বলা যায় যে, রাজপুতদের ওপর যেটুকু ভরসা ছিলো সেটাও। সংগ্রাম সিংহের জন্য বিফলে যায়। সংগ্রাম সিংহ এবং দৌলত খাঁ লোদী বাবরকে ভারত আক্রমণের আহ্বান জানিয়ে চরম ভুল করেছিলেন ।যদিও তারা শেষ পর্যন্ত বাবরকে রুখে দেওয়ার চেষ্টা করেছিল, কিন্তু তারা ব্যর্থ হয়েছিল।

 

সমাপ্ত

 

 

Download PDF

 

How to get Islamic History Assignment Answer PDF HSC 2022 Class 12?

All Bangladesh Education Board facilities get an HSC 2022 Class 12 islamic history Assignment and Answer 2022 The subject is islamic history HSC 2022. Well, it’s quite obvious that most of the students in BD are from all areas, they may not have the facility of any device view download pdf example: Computer, Laptop or Android MOBILE Phone, if you are not able to check your islamic history Assignment and Answer Class 12 2022, then you can get your schools The subject is islamic history HSC 2022. HSC 2022 Class 12 islamic history Assignment Answer.

 

How to do HSC 2022 Class 12 Islamic History Assignment Answer 2022?

On the off chance that you don’t think about the HSC 2022 Class 12 islamic history Assignment Answer process And publish it, this area will improve your insight in a matter of Minutes. It would be ideal if you’re The HSC 2022 Class 12 Assignment Answer and ensure you are following the procedure appropriately The subject is islamic history HSC 2022. Here you go islamic history Assignment Answer HSC 2022 Class 12 2022.

 

When will the HSC 2022 Class 12 Islamic History Assignment Start in 2022?

To whom it may concern & The subject is islamic history HSC 2022 get the best HSC 2022 Class 12 islamic history Assignment Answer of All Bangladesh boards you try to see here. You cannot know to check and follow these rules The Islamic history Assignment. HSC 2022 Class 12 islamic history Assignment Answer

 

14th Week HSC 2022 Class 12 Islamic History Assignment answer 2022

Every Assignment seeker The subject is islamic history HSC 2022 knows that study.shajutechbd.com publishes all types of Assignment Answer of All Assignment with an answer pdf file islamic history. This Notice is also found on my website guide & assignment solution. Finally, you can understand the total HSC 2022 Class 12 islamic history Assignment 9 board by 2022. So you need to be connected to our address. In conclusion, for next Week’s update about the update assignment and Answer Notice. Finally 14th Week islamic history Assignment HSC 2022 Class 12 etc. So stay with us. HSC 2022 Class 12 islamic history Assignment Answer The subject is islamic history HSC 2022.

Leave a Comment

Your email address will not be published.